হাসপাতালে নবজাতকের শরীর গরম করতে গ্যাসের চুলা ব্যাবহার

894

সোনারগাঁ প্রতিনিধি: সোনারগাঁয়ের নয়াপুর সাদিপুর  ইউনিয়নের নয়াপুর বাজারস্থ অবস্থিত জেনারেল হাসপাতাল এন্ড ডিজিটাল ল্যাব লিঃ নামের প্রতিষ্ঠানটি রোগীদের মৃত্যুপল্লীতে পরিনত হয়েছে। হাসপাতালের দালালদের দৌরাতœ কারনে আশেপাশের এলাকার রোগীরা অন্য কোন হাসপাতাল সর্ম্পকে বোঝে উঠার আগেই দালালরা ভর্তি  করিয়ে দেয় এখানে। এ প্রতিষ্ঠানে নামিদামী ডাক্তারদের সাইবোর্ড ও উন্নত মানের ল্যাব ইত্যাদি ব্যবহার করে অভিজ্ঞ ডাক্তার নার্সরা অপারেশনরে মতো জটিল রোগের চিকিৎসা করে যাচ্ছে। গ্রাম গঞ্জের এসব সহজ সরল মানুষদের বোকা বানিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে কোটি কোটি টাকা ।

অভিযোগ উঠেছে, নয়াপুর জেনারেল হাসপাতাল এন্ড ডিজিটাল ল্যাব লিঃ নামের প্রতিষ্ঠানটি কিছু জামাত শিবির নেতাদের দ্বারা পরিচালিত। এই হাসপাতালে গত বৃহস্পতিবার জাঁমপুর ইউনিয়নের কলতাপাড়া গ্রামে শ্যামল মিয়ার গর্ভবতী স্ত্রী সুমাইয়া (২৫) তীব্র ব্যথা অনুভব করার পর দ্রুত দালালদের মাধ্যেমে নয়াপুর  জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ভর্তি পর সন্ধ্যায় সিজারে ছেলে নবজাতকের জম্ম নেয়। জম্মের পর পর গরম তাপ দেওয়ার জন্য গ্যাসের চুলায় নিয়ে বাচ্চার গায়ে তাপ দিলে শিশুটির অবস্থা খারাপ হতে থাকে। এক পর্যায়ে বাচ্চাকে অন্য হাসপাতালে নেওয়ার জন্য কর্তৃপক্ষ অক্সসিজেন ছাড়া সিএনজিতে উঠালে ঘটনাস্থে শিশুটি মারা যায়।

কিছুদিন আগে সাদিপুর ইউনিয়নের নানাখী গ্রামের সিদ্দিক মিয়ার পূত্রবধূকে  সিজার করা জন্য অপোরেশন থিয়েটারে নিয়ে পেটের চামরা কেটে নবজাতককে বের করতে ব্যর্থ হলে কোন মতে সেলাই করে অন্য হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয় অন্য হাসপাতালে। মা ও নবজাতককে অন্য হাসপাতালে নেওয়ার পথে মা বাচ্চা দুজনই মারা যায় । ##