সোনারগাঁয়ে ৫ম শ্রেণীর ছাত্রীকে জোড় পূর্বক ধর্ষনের অভিযোগ

46

সোনারগাঁ প্রতিনিধি: সোনারগাঁ উপজেলায় ৫ম শ্রেণীর পড়–য়া (১২) ছাত্রীকে জোর পূর্বক ধর্ষনের অভিযোগ উঠেছে একই বিদ্যালয়ের দপ্তরী স্বপনের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে জামপুর ইউনিয়নের ২১নং উটমা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। ধর্ষিতা স্কুল ছাত্রী জামপুর ইউনিয়নের উটমা গ্রামের এক দিন মজুরের মেয়ে।

এ ঘটনায় (১৬ নভেম্বর) বৃহস্পতিবার বিকালে ধর্ষিতা ছাত্রীর মা বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে।

স্কুল ছাত্রীর মা তার অভিযোগে উল্লেখ করেন, তার তিন মেয়ের মধ্যে মেজ মেয়ে (ধর্ষিতা) জামপুর উটমা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেনীতে লেখাপড়া করতো। গত (১৪ নভেম্বর) মঙ্গলবার সকাল ১০টায় বিদ্যালয়ে পাঠদান করার সময় প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে সে বাথরুমে যায়। এসময় তার মেয়ে বাথরুম থেকে বাহির হওয়ার সময় পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা দপ্তরী স্বপন ওই ছাত্রীকে ধাক্কা দিয়ে বাথরুমের ভেতরে ঢুকিয়ে দরজা লাগিয়ে দেয় এবং ভয়ভীতি দেখিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষন করে। এ সময় লম্পট দপ্তরী ওই ছাত্রীকে ঘটনাটি কাউকে না বলতে হত্যাসহ নানা ধরনের ভয়ভীতি দেখায়। এদিকে এ ঘটনার পর ওই ছাত্রী স্কুলে যাবে না বলে মাকে জানায়। কেন যাবে না তা জিঞ্জেস করলে ওই ছাত্রী ঘটনাটি মাকে জানায়। ধর্ষক স্বপন উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের উটমা গ্রামের শহিদুল্লাহ’র (সাবেক মেম্বার) ছেলে।
এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানার ওসি মোর্শেদ আলম জানান, ধর্ষনের ঘটনায় থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ধর্ষিকা ডাক্তারী চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। ধর্ষককে গ্রেফতারের জন্য বিভিন্œ স্থানে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ । ###