ছাত্রীর আত্মাহত্যা, বিচার চেয়ে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন এলাকাবাসীর

69

সোনারগাঁ প্রতিনিধি: সোনারগাঁয়ের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জিআর স্কুল এন্ড কলেজের এসএসসি পরীক্ষার্থী আমেনার আত্মাহুতিতে প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষের কটুক্তিকেই দায়ি করেছে তার পরিবার, সহপাঠি ও স্থানীয়রা। এরই ধারাবাহিকতায় অধ্যক্ষের বিচার চেয়ে মানববন্ধন করেছে রাজনৈতিক সংগঠন, স্থানীয় এলাকাবাসী, পরিবারের সদস্য, স্বজন ও সহপাঠিরা। মঙ্গলবার সকালে জিআর স্কুলের সামনে মানববন্ধনটি অনুষ্ঠিত হয়। পরে বিক্ষোভ মিছিল করে মানববন্ধনে অংশ গ্রহন করে বিচার প্রার্থীরা।
সরেজমিনে গিয়ে দেখাগেছে, ‘জিআর স্কুল এন্ড কলেজের সকল ছাত্র-ছাত্রী বৃন্দ’ লিখা ব্যানারে “ সোনারগাঁও জিআর স্কুল এন্ড কলেজের ১০ম শ্রেণীর ছাত্রী আমেনা আক্তারের অকাল মৃত্যুর পিছনে দুর্ণিতিবাজ অধ্যক্ষ সুলতান মিয়া তথা এই অকাল মৃত্যুর মুল হোতাদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি চাই।” প্রশ্ন রেখে তিন বার লেখা রয়েছে কেন এই বৈষম্য ? কথাটি। আরো লেখা রয়েছে, আমরা জানি প্রাতিষ্ঠানিক নিয়ম- ধনী ও গরিব সবার জন্য সমান, কিন্তু আজ এই বৈষম্যহীনতার জন্য দায়ি সুলতান মিয়া তথা স্কুল কর্তৃপক্ষ।
পৌর ছাত্রলীগ এর ব্যানারে লেখা রয়েছে, “জিআর ইনস্টিটিউশন মডেল স্কুল এন্ড কলেজের ১০ম শ্রেণীর ছাত্রী আমেনা আক্তার এর অকাল মৃত্যুতে আমরা গভীর ভাবে শোকাহত”।
এদিকে, মানববন্ধনে অংশ নেওয়া অনেকে দাবি করে অকৃতকার্য হওয়া এবং ফরম পুরনের টাকা কমাতে অধ্যক্ষ সুলতান মিয়ার কাছে আমেনা ও তার পরিবার গেলে তাদের উদ্দেশ্য করে অধ্যক্ষ কটুক্তি করে। যদিও পরবর্তীতে অধ্যক্ষ সুলতান মিয়া তার কটুক্তির জন্য আমেনার পরিবারের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন বলে জানান তারা।
উল্লেখ্য, নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার পৌর এলাকায় অবস্থিত জিআর স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ সুলতান মিয়া কর্তৃক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির এসএসসি পরীক্ষার্থী আমেনা আক্তার এসএসসি পরীক্ষার ফরম পুরণের টাকা দিতে না পারায় কটুক্তির শিকার হয়। এতে অভিমান করে গত রবিবার সে আত্মহত্যা করে। ###