কোরাবানীর গরুর মুল্য পরিশোধ না করার অভিযোগ জাতীয় পার্টির এমপি’র বিরুদ্ধে

52

নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: তিন-চার বছর আগে কোরবানী দেয়ার জন্য গরু কিনেছিলেন। কিন্তু এখনো পুরো টাকা শোধ করেননি বলে অভিযোগ উঠেছে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থেকে নির্বাচিত জাতীয় পার্টির এমপি লিয়াকত হোসেন খোকার বিরুদ্ধে।
নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার কাইক্কার টেক হাট। রোববার ছিলো হাটবার। এছাড়া সামনেই কোরবানী। অনেকেই নিজ নিজ পশু নিয়ে এসেছেন হাটে। তাদের মধ্যে রয়েছেন সোনানারগাঁয়ের সন্মানদী ইউনিয়নের উলুকান্দা গ্রামের বাসিন্দা মঈনুল ইসলাম। তার পিতার নাম আলফাজ উদ্দিন। মঈনুল ইসলাম আফসোস করে জানালেন, ২০১৫ সালের কোরবানীর ঈদে এমপি লিয়াকত হোসেন খোকা তার কাছ থেকে তিনটি গরু কিনেন। তিনটি গরুর দাম হয়েছিলো ২ লাখ পচাত্তর হাজার। গরু নিয়ে গত তিন বছরে আস্তে আস্তে তিনি মুল্য শোধ করেন। এর মধ্যে এখনো প্রায় সত্তর হাজার টাকা বাকি। এ টাকা কবে তিনি পাবেন নাকি পাবেন-ই না তা জানেন না। তিনি বলেন, টাকার জন্য অনেকবার এমপি সাহেবের বাসায় বাড়িতে গিয়েছি। কিন্তু তিনি টাকা শোধ করেন না। যেতে আসতেও বহু টাকা চলে গেছে।
একই হাটে কথা হলো গরু ব্যবসায়ী দেলওয়ারের সাথে। সাড়া বছর তিনি বাছুর বিক্রি করেন। শুধু কোরবানীর সময় কোরবানীর উপযোগি গরু দেশের প্রত্যন্ত এলাকা থেকে এনে কাইক্কারটেক হাটে বিক্রি করেন। তিনি বলেন, প্রায় চার বছর আগে এমপি খোকা সাহেব তাদের কাছ থেকে বেশ কয়েকটি গরু কেনেন। তাদের গরুগুলির মোট মুল্য ছিলো চার লাখ পাঁচ হাজার টাকা। এ টাকা তিনি আস্তে আস্তে শোধ করেছে। তবে একটি ভুটানি গরুর মুল্য ছিলো সত্তর হাজার টাকা। সেটির পঞ্চাশ হাজার টাকা শোধ করলেও বাকি টাকা এখনো শোধ করেননি। চাইতে চাইতে ক্লান্ত হয়ে এমপি সাহেবের কাছে তারা এখন আর গরুর মুল্য চাননা। তারা তিনজন বেপারী এ গরু এনেছিলেন। মুল্যের ব্যাপারে কারো কাছে অভিযোগ করলে তাদের আরো বিপদে পড়তে হতে পারে। এ জন্য তারা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নিজেরাই এ ক্ষতির টাকা নেজেদের মধ্যে ভাগ করে নেবেন।
এরকম অভিযোগ থাকলে কোরবানী হবেনা বলে মন্তব্য করলেন ইসলাম ফ্রন্ট বাংলাদেশ এর চেয়ারম্যান হযরত বাহাদুর শাহ্ মুজাদ্দেদী। এমপি লিয়াকত হোসেন খোকার নাম না জানিয়ে তাকে এ বিষয়টি জানানো হয়। তিনি এ প্রসঙ্গে বলেন, কোরআন শরীফে আছে কোরবানীর পশুর রক্ত মাংস আল্লাহর কাছে পৌছায় না। পৌছায় কোরবানীকারীর ত্বাকওয়া। ’ ত্বাকওয়া মানে হচ্ছে খোদভীরুতা, আল্লাহ্র ইবাদ করার ব্যাপারে তার আন্তরিকতা। কিন্তু তা না হয়ে যদি ইবাদে কোনো ধরনের প্রতারনা হয় তাহলে কোরবানী হবেনা। কোরবানীর পশু বাকিতেও ক্রয় করার বিধান আছে কিন্তু নির্ধারিত সময়ে মুল্য শোধ করতে হবে। কোরবানী হতে হবে নিখুঁত। এখানে প্রতারনা হয়েছে তাই কোরবানী হয়নি।
এ ব্যাপারে কথা বলতে এমপি লিয়াকত হোসেন খোকার মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করলেও তিনি ফোন ধরেননি। কথা বলার জন্য তাকে একটি ক্ষুদে বার্তা পাঠিয়ে পরে ফোন দিলেও তিনি ফোন ধরেননি।
লিয়াকত হোসেন খোকা ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁ) আসনে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন পান। তিনি জাতীয় পার্টির যুগ্ম মহাসচিব। বিনা ভোটে তিনি এমপি নির্বাচিত হন। #