সিলিন্ডার কোম্পানীগুলোর ব্যবসা জমজমাট করতে গ্যাসের দাম বৃদ্ধি

162

নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: গ্যাসের মূলবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত বাতিল ও বিদ্যুতের মূলবৃদ্ধির ষড়যন্ত্রের এবং হরতালে পুলিশী হামলা নির্যাতনের প্রতিবাদে সমাবেশ করেছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি-সিপিবি ও বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ এর নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখা। সমাবেশে বক্তারা বলেন, সিলিন্ডার কোম্পানীগুলোর ব্যবসা জমজমাট করার জন্যই গ্যাসের দাম বৃদ্ধি করা হচ্ছে।

মঙ্গলবার বিকেল চারটায় চাষাড়াস্থ শহীদ মিনারে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

কমিউনিষ্ট পার্টির নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি হাফিজুল ইসলামের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাসদ নারায়ণগঞ্জ জেলা সমন্বয়ক নিখিল দাস, আবু নাঈম খান বিপ্লব, সিপিবি জেলা সাধারণ সম্পাদক শিবনাথ চক্রবর্তী, বিমল কান্তি দাস, আব্দুল হাই শরীফ, বাসদ নেতা সেলিম মাহমুদ প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন-সরকার আবাসিক পর্যায়ে সিঙ্গেল চুলা ৭৫০ ও ডাবল চুলা ৮০০ টাকা ধার্য করেছে। যা ১লা মার্চ থেকে কার্যকর করা হবে। একইভাবে ১জুন থেকে সিঙ্গেল চুলা ৯০০ ও ডাবল চুলা ৯৫০ টাকা কার্যকর করার কথা ঘোষনা করেছে। যেটা সম্পূর্ণ অন্যায় ও অযৌক্তিক। কারণ গ্যাস খাত লাভজনক খাত। প্রতিটি গ্যাস কোম্পানী লাভজনক অবস্থায় রয়েছে। গত ২০১৫-১৬ অর্থ বছরে গ্যাস বিক্রি বাবদ কোম্পানীগুলো আয় করেছে ১৬ হাজার ৬২৬ কোটি টাকা। গ্যাসের উন্নয়ন তহবিলে ২৫ হাজার কোটি টাকা অলস পড়ে থাকলেও এ নিয়ে সরকারের কোন পদক্ষেপ নেই। সবচেয়ে বেশি দাম বেড়েছে আবাসিক ও বানিজ্যিক গ্রাহক পর্যায়ে। বানিজ্যিক গ্রাহকদের ক্ষেত্রে দাম প্রায় ৫০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। গ্যাসের দাম বাড়ানোর ফলে মুদ্রাস্ফীতি বাড়বে, জিনিসপত্রের দাম বাড়বে। ইতিমধ্যে বিদ্যুৎ দাম বাড়ানোর কথাও বলেছেন। ফলে এটা জনগনের উপর সবার উপর খাড়ার খাঁ এর সামিল। এমননিতে বহু বাসা-বাড়ী ও কারখানা নিরবিচ্ছিন্ন গ্যাস সববরাহ পাচ্ছে না। ফলে গ্যাসের দাম বৃদ্ধি তাদের দূর্ভোগ আরো বাড়াবে। সরকারের চলমান সীমাহীন দূর্নীতি, লুটপাট ও ভুলনীতির দায় জনগনের কাঁধে চাপানোর জন্যই এই মূল্যবৃদ্ধি। সরকার কখনও বলে দেশ গ্যাসের উপর ভাসছে আবার বলে দেশে গ্যাস সংকট, জনগন তাদের উপর আস্থা রাখতে পারছে না। সিপিবি-বাসদের ডাকা হরতালে ব্যাপক জনগনের সমর্থন থাকলেও সরকার ছাত্র ফ্রন্ট এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন প্রিন্সসহ ৭জনকে গ্রেফতার করেছে। সরকারের দমন পীড়ন নির্যাতন প্রমান করে সরকার গণবিচ্ছিন্ন এবং জনগনের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে গ্রেফতারকৃত নেতাদের মুক্তি ও বিদ্যুতের মূল্য বাড়ানোর ঘোষনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, যে কোন মূল্যে গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির ষড়যন্ত্র জনগনকে নিয়ে প্রতিহত করা হবে।
একই দাবীতে নগরীর নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে সকালে ও বিকেলে একাধিক মিছিল ও সমাবেশ করেছে ন্যাপ, গনসংহতি আন্দোলন ও বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি। #