সিদ্ধিরগঞ্জে নানী-নাতির লাশ উদ্ধার: মেয়ের জামাতা আটক

483

নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি এলাকা থেকে তালা ভেঙ্গে ঘরের ভেতর থেকে নানী-নাতির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে পাইনাদি মধ্যপাড়া এলাকা থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদে জন্য মেয়ের জামাতা নবী আউয়ালকে আটক করেছে পুলিশ।
নিহতেরা হলো- সিদ্ধিরগঞ্জে পাইনাদী মিজমিজি মধ্যপাড়া এলাকার মৃত রহিম মিয়ার স্ত্রী পারভীন আক্তার(৪৮) ও তার নাতি মেহেদী হাসান(৯)।

জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, সিদ্ধিরগঞ্জের পাইনাদী মধ্যপাড়া এলাকার ইতালী প্রবাসী তোফাজ্জল হোসেনের টিনশেড বাড়ির কেয়াটেকার নবী উন আউয়াল। তিনটি রুমের মধ্যে দুটি নবী উন আউয়াল ও তার শাশুড়ি ছেলে থাকেন। অপর রুমটি ভাড়াটিয়া থাকতো। গত ৬ মাস যাবত রুমটি তালাবন্ধ ছিল।
মেয়ের জামাতা নবী আউয়াল জানান, গত ২৮ ডিসেম্বর বৃহস্প্রতিবার থেকে তা ছেলে মেহেদী হাসান ও শ্বাশুড়ি নিখোঁজ ছিলো। ছেলে শ্বাশুড়ি স্থানীয় মসজিদের মাইকে মাইকিং করে।
গত দু’দিন আগে শাশুড়ি পারভীন আক্তার ও ছেলে মেহেদী হাসান নিখোঁজ মর্মে থানায় জিডি করেন জামাতা নবী উন আউয়াল।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে ওই বাড়ি থেকে গন্ধ বের হলে প্রতিবেশীরা খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে ঘরের তালা ভেঙ্গে তাদের লাশ উদ্ধার করে। তিনি আরো তাদেরকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। নবী উন আউয়ালের দুই স্ত্রী। বড় স্ত্রী লেবান থাকে। আর ছোট স্ত্রী শিল্পি বেগম সৌদি প্রবাসী। ছোট স্ত্রী শিল্পি বেগম টাকা পাঠায় মা পারভীন বেগমের কাছে।

পুলিশের ধারনা পরিবারিক কলহ বা টাকা পয়সার লেনদেন সংক্রান্ত কারনে এই খুনের ঘটনা ঘটতে পারে। প্রায় পাচঁ ছয়দিন আগে নানী নাতিকে খুন ঘরে তালা বন্ধ রেখে পালিয়েছে দুবৃত্তরা। হত্যাকন্ড সংগঠিত রুমটিতে মাদক সেবনের আলামত পেয়েছে পুলিশ।
আটক নবী আউয়ালের বাড়ি সোনারগাঁ উপজেলার বাংলাবাজার দড়িকন্দি এলাকায়।

লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। জামাতা নবী উন আউয়ালকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ###