লাঙ্গলবন্দে পুণ্যস্নানে পূন্যার্থীদের বিশেষ নিরাপত্তা ব্যাবস্থা নিবে পুলিশ

278

নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: গত বছর ১০জন পুন্যার্থী পদদলিত হয়ে নিহত হওয়ায় এবারে লাঙ্গলবন্দে স্নানে উৎসবের  তিনদিনের বিশেষ নিরাপত্তায় ব্যবস্থা নিচ্ছে পুলিশ। পুরো লাঙ্গলবন্দ এলাকা নিরাপত্তার চাঁদরে ঢেকে দেয়া হবে। আগামী ১৪ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার লাঙ্গলবন্দে ব্রহ্মপুত্র নদে হিন্দু ধর্মালম্বীদের স্নান উৎসব অনুষ্ঠিত হবে। দেশ বিদেশ থেকে হাজার হাজার পূন্যার্থীর সমাগম ঘটবে লাঙ্গলবন্দের স্নান উৎসবে। আজ রবিবার দুপুরে জেলা পুলিশ সুপারের কার্য্যালয়ে মাসিক সভায় এসব নানা প্রস্তুতির কথা জানান পুলিশ সুপার ড. খন্দকার মহিদ উদ্দিন। তিনি জানান, স্নানোৎসবকে ঘিরে একশ তিন কোটি টাকার প্রজেক্ট হাতে নেয়া হয়েছে। এর মধ্যে অত্যাধুনিক একটি কমপ্লেক্স করা হয়েছে। সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়ার কথা উল্লেখ করে তিনি জানান, পুরো এলাকাকে সিসিটিভির আওতায় আনা এনে ওয়াচ টাওয়ারের মাধ্যমে স্বার্বক্ষণিকভাবে মনিটরিং করা হবে। ওয়ারলেস কন্ট্রোল রুম বসানো হয়েছে। পুলিশ, র‌্যাব, আনসার, ভিডিবির প্রায় সাড়ে আটশ সদস্য আইন শৃংখলা রক্ষায় নিয়োজিত থাকবে। তাদের জন্য আলাদা অস্ত্রাগার ও একটি ফাঁড়ি থাকবে। যানজট এড়াতে ট্রাফিক ব্যবস্থা থাকবে। এছাড়া পূণ্যার্থীদের জন্য প্রাথমিক চিকিৎসাসেবার ব্যবস্থাসহ দূর্ঘটনা এড়াতে ও  উদ্ধারে বিপুল সংখ্যক ফায়ার সার্ভিসের কর্মী নিয়োজিত থাকবে। পুলিশ সুপার জানান, স্নানের ঘাটগুলোতে পূণ্যার্থীদের আসা যাওয়ার জন্য আলাদা বাইপাস সড়ক নির্মান করা হয়েছে। সড়কের দুপাশে কোন ধররেণর দোকানপাট বসানো ও ভিখারীদের অবস্থান নিষিদ্ধ করা হয়েছে। গত বছর এই স্নানোৎসবে পদদলিত হয়ে ১০ জন নিহতের ঘটনার যেন পুনরাবৃত্তি না ঘটে তার জন্য প্রশাসনের টানা তিননিব্যাপী ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়ে পাশাপাশি সবাইকে সতর্ক তাকার আহবান জানান তিনি।
সভায় জেলা পুলিশের বিভিন্ন বিভাগসহ, ব্যাব, বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা, ফায়ার সার্ভিস, বিআইডব্লিউটিএ’র উর্ধতন কর্মকর্তারাসহ স্নানোৎসব উদযাপন কমিটির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। ##