মান্না, ড. কামাল হোসেন গং ষড়যন্ত্রে লিপ্ত : ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এম.পি

28

নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: মাহমুদুর রহমান মান্না ও ড. কামাল হোসেন গং ষড়যন্ত্রে লিপ্ত বলে মন্তব্য করেছেন বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সদস্য সচিব ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস এমপি। তিনি বলেন, ষড়যন্ত্রকারীরা এখনও ওঁৎ পেতে রয়েছে। যে প্রতিক্রিয়াশীল অপশক্তি বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করেছিল সেই প্রতিক্রিয়াশীল অপশক্তিরা থেমে নেই। তারা সেনাবাহিনীর মাধ্যমে কিছু করার চেষ্টা করছে, জঙ্গিবাদের মাধ্যমে এবং যুদ্ধাপরাধীদের মাধ্যমেও সরকার উৎখাতের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। তবে সব কিছুতে ব্যর্থ হয়ে এখন দেশের বিচারাঙ্গনকে নিয়ে নতুন ভাবে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। যে বিচারাঙ্গনে দেশের মানুষের সবচেয়ে বেশি বিশ্বাস সেই বিচারাঙ্গনকে কলুষিত এবং কলঙ্কিত করার চেষ্টা শুরু হয়েছে।
তিনি বলেন, ষোড়শ সংশোধনীর মাধ্যমে সংবিধানের যে বিষয়গুলো ছিল প্রতিষ্ঠিত, সেই প্রতিষ্ঠিত বিষয়গুলোকে রায়ের মাধ্যমে রায়ের পর্যবেক্ষনের মাধ্যমে কুলষিত এবং কলঙ্কিত করতে চায় তারা। তারা একটি জুডিশিয়াল অ্যানার্জি তৈরী করতে চায়। এর মাধ্যমে স্বাভাবিক নিয়মের বাইরে গিয়ে তারা অন্যপথে সরকার তৈরীর চেষ্টা করতে চায়।
রোববার দুপুরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে সমিতি আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্যে ব্যারিষ্টার ফজলে নূর তাপস এসব কথা বলেন। ব্যারিষ্টার তাপস বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে শহীদ শেখ ফজলুল হক মনির ছেলে।
জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান দিপুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের আহবায়ক অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ূন, বার কাউন্সিলের ভাইস প্রেসিডেন্ট আবদুল বাসেত মজুমদার, বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের কেন্দ্রীয় নেতা অ্যাডভোকেট আজহারুল্লাহ, নারায়ণগঞ্জ বারের সাবেক সভাপতি প্রবীণ আইনজীবী অ্যাডভোকেট আমিনুল হক, নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহা, নারায়ণগঞ্জ বারের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট হাসান ফেরদৌস জুয়েল প্রমুখ।
ফজলে নূর তাপস তার বক্তব্যে আরো বলেন, ষড়যন্ত্রকারীদের বাংলাদেশের মানুষ চিনে। এদেশের মানুষ তাদের বার বার প্রত্যাখ্যান করেছে। তারপরেও তারা ষড়যন্ত্র করেই যাচ্ছে। গত ১৫ আগষ্টেও জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার জন্য ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে জঙ্গিরা ওঁৎ পেতে ছিল। কিন্তু আল্লাহর অশেষ রহমতে তিনি রক্ষা পেয়েছেন। ব্যারিস্টার তাপস ড. কামাল হোসেন এবং মাহামুদুর রহমান মান্নার নাম নিয়ে বলেন, ড. কামাল হোসেন ড. কামাল হতে পেরেছেন বঙ্গবন্ধুর কারণে। আর মান্নাকে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক না বানালে তাকে কেউ চিনতোও না। অথচ তারাও ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। বিশ্বাস ঘাতকতার একটি সীমা রয়েছে। তিনি ওই ২ জনের উদ্দেশ্যে বলেন, সাহস থাকলে নির্বাচনে আসেন। দেখি শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ জয়ী হয় না আপনারা জয়ী হন। #