বেগম ফজিলাতুনন্নেছা মুজিব পার্কের কাজ বন্ধ করতে প্রকাশ্যে এলেন শামীম ওসমান

4748

নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: নগরীর দেওভোগ-জিমখানা এলাকায় নির্মাণাধীন বেগম ফজিলাতুনন্নেছা মুজিব পার্কের কাজে প্রতিবন্ধকতা সৃস্টি করতে প্রকাশ্যে এলেন সাংসদ শামীম ওসমান। আজ রোববার জাতীয় সংসদে শামীম ওসমান তার বক্তবে বলেছেন, বেগম ফজিলাতুনন্নেছা মুজিব পার্কের নামে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন রেলওয়ের জমি দখলের চেষ্ঠা চালাচ্ছে। এদিকে শামীম ওসমানে এমন বক্তব্যে শহরবাসি প্রতিক্রিয়ায় জানিয়েছেন, তাহলে কি শামীম ওসমান চায়না নগরবাসির বহু আকাক্ষিত একটি পার্ক সৌন্দর্য্য বর্ধিত জলাশয় নির্মিত হোক। শামীম ওসমান বেগম ফজিলাতুনন্নেছা মুজিব পার্কের বিরোধিতাকরায় এলাকাবাসি মনে করছে, মেয়র আইভী’র এ ধরনের উদ্যোগ এবং এ পার্ক দেওভোগ এলাকায় হওয়ার কারনেই তার এমন বিরোধিতা প্রকাশ করেছেন। তারা জানিয়েছেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত আইভীর উন্নয়নের কাজে বাধা সৃস্টি করতে নানা রকম চক্রান্ত করছে ওসমান পরিবার।
samim-osman.thumbnailএ বিষয়ে দেওভোগ এলাকার বাসিন্দা লাভলু আহমেদ জানিয়েছেন, একজন জনপ্রতিনিধি হয়েও সাধারন মানুষের প্রানের দাবি উপেক্ষা করে শামীম ওসমানের এ ধরনের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়াটা সত্যিই দু:খজনক।
এদিকে বাবুরাইল এলাকার বাসিন্দা আহসান স্বপন জানিয়েছেন, পার্কটি সিপি কর্পোরেশন নির্মান করলেও এতে আইভীর ব্যাক্তিগত কোন লাভ হবে না। এর সুবিধা ভোগ করবে পুরো শহরবাসি। আইভী’র বিরুদ্ধাচরনের জন্য পার্ক বন্ধের পায়তারা ঠিক নয়। শামীম ওসমানের এ ধরনের বিরোধিতা শহরবাসি মেনে নেবে না।
এদিকে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন সূত্রে জানা গেছে,জলাধার আইন অনুযায়ী সিটি কর্পোরেশন এলাকার যেকোন জলাধার সিটি কর্পোরেশন সংরক্ষন করতে পারে। আর ডিটেইল এরিয়া প্লানেও রেলওয়ের এই জলাধারটি রেখে পার্ক করার পরিকল্পনা করা হয়েছে। সরকারের সে পরিকল্পনা বাস্তবায়নে এ কাজ করা হচ্ছে। এখানে সিটি কর্পোরেশনের নিজস্ব অর্থায়নে আট কোটি টাকা ব্যায় করা হচ্ছে। তবে বেগম ফজিলাতুনন্নেছা মুজিব পার্কের বর্ধিত অংশ হবে শীতলক্ষা-ধলেশ্বরী সংযোগ খাল এর সৌন্দর্যবর্ধন প্রকল্প। বেগম ফজিলাতুনন্নেছা মুজিব পার্ক ও এর বর্ধিত অংশ অনেকটা হাতিরঝিল পার্কের মতো একটি প্রকল্প। বর্ধিত অংশ বাস্তবায়নে ২২০ কোটি টাকা খরচ হবে। বিশ্বব্যাংক এর অর্থায়ন করছে। এটি বাস্তবায়নে টেন্ডার প্রক্রিয়া শুরু করেছে।
এর আগে গত ২৭ জানুয়ারী দুপুরে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে নগরীর দেওভোগ-জিমখানা এলাকায় নির্মাণাধীন বেগম ফজিলাতুনন্নেছা মুজিব পার্কের কাজ বন্ধ করতে এসে এলাকাবাসির তোপের মুখে পড়েন রেলওয়ে কর্মকর্তারা। এসময় এলাকাবাসি রেলওয়ে কর্মকর্তাদের স্বাধীনতা বিরোধীদের সহযোগি হিসেবে আখ্যায়িত করে স্লোগান দেয়। এলাকাবাসি কাজ অব্যহত রাখার দাবীতে তাৎক্ষনিক মিছিল বের করে।
উল্লেখ্য এর আগে পঞ্চবটিতে সিটি কর্পোরেশন পার্ক নির্মান করলেও তাতে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে সাংসদ শামীম ওসমান ব্যাপক সমালোচনা করেন। তার সমর্থকরা পার্ক উদ্বোধনের অনুষ্ঠান বাধা সৃস্টি করে। কিন্তু তার একদিন পরেই নিজে সেই পার্ক উদ্বোধন করে সমালোচিত হন শামীম ওসমান। ###