ফতুল্লায় পরিবহন শ্রমিক পুলিশ সংঘর্ষে ৫জন গুলিবিদ্ধসহ ২২ জন আহত

440

নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: পুলিশের কনস্টবলের সাথে ট্রাক পরিবহনের শ্রমিক নেতার ঝগড়াকে কেন্দ্র করে পুলিশের সাথে শ্রমিকের সংঘর্ষ গুলিবর্ষনে ৫ শ্রমিকসহ ২২জন আহত। আহতদের মধ্যে দুইজন পুলিশ সদস্য রয়েছে। প্রতিবাদে রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে ঢাকা-মুন্সিগঞ্জ সড়ক আধাঘন্টা অবরোধ করে শ্রমিকরা। এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। গুলিবিদ্ধরা হলো রহিম, এনায়েত, ফারুক, হাসান, আল-আমিন। এঘটনায় পুলিশের দুই এস আই আহত হয়েছে।  আহত শ্রমিকদের নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালসহ আশপাশের ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
আজ সোমবার সকালে নারায়ণগঞ্জে ফতুল্লা থানার পঞ্চবটি এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।
এলাকাসি ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের কনস্টেবল আজাদ ও ফতুল্লা ট্রাক শ্রমিক সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক আমিনুল দুজনে একই অটোরিকসায় পুলিশ লাইন থেকে ফতুল্লা যাচ্ছিল। পথে অটো রিকসায় সিটে বসা নিয়ে কনস্টেবল আজাদের সাথে শ্রমিক নেতা আমিনুলের বাকবিতন্ডতা হয়। একপর্যায়ে আজাদ আমিনুলকে থাপ্পর মারে। এতে শ্রমিকনেতা আমিনুল পুলিশ সদস্য আজাদকে মারধর করে মাথা ফাটিয়ে দেয়। পরে পঞ্চবটিতে কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশ শ্রমিক নেতা আমিনুলকে আটক করে রাখে খবর পেয়ে পরিবহন শ্রমিকরা পঞ্চবটি এলাকায় এসে ভাংচুর করে ঢাকা-মুন্সিগঞ্জ সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে আধাঘন্টা সড়ক অবরোধ করে রাখে। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে ২০/৩০ রাউন্ড গুলি ছুওে পরিবহন শ্রমিকদের ছত্তভঙ্গ করে দেয়।
এ ব্যাপারে ফতুল্লা মডেল থানার এ এসপি শরফুদ্দিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানিয়েছে, এখন পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতয়েন করা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে শ্রমিক নেতাদের নিয়ে পুলিশ বৈঠক করছে। ##