নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোট সংশ্লিষ্ট লেখকদের বই প্রকাশনা উৎসব

361

নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম:  লেখক অধ্যাপক আসফার হোসেন বলেছেন, কবিতা বাংলাভাষার তরুন কবিরা প্রচুর পরীক্ষা নিরীক্ষা করছেন। কিন্তু রাজনীতিকে অস্বীকার করে কবিতা লেখা হচ্ছে। এটা সা¤্রাজ্যবাদের ওৗরসে তৈরী হয়েছে। ভাষা আন্দোলন, ’৭১ এর মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশের কৃষক শ্রমিকসহ আপামর জনসাধারণ ঘটিয়েছিলো। কিন্তু এখন বাংলার কৃষক,শ্রমিক মেহনতি মানুষ সাহিত্যে, কবিতা ও নাটকে উপেক্ষিত হচ্ছেন। যদি এভাবে চলতে থাকে আমাদের সংস্কৃতিতে বিদেশী কর্পোরেট ধারা যে প্রভাব তৈরীর চেষ্টটা করছে-সেটা আরো শক্তিশালী হবে। এ থেকে বের হয়ে আসার জন্য সাহিত্যকে সাধারণ মানুষের কাছে নিয়ে যেতে হবে।
সোমবার রাতে নগরীর চাষাঢ়ায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের আয়োজনে জোট সংশ্লিষ্ট লেখকদের বাংলা একাডেমীর চলতি বই মেলায় প্রকাশিত বইয়ের প্রকাশনা উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি জিয়াউল ইসলাম কাজলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আলোচক হিসেবে ছিলেন, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রফিউর রাব্বি ও কবি আরিফ বুলবুল। বক্তব্য  রাখেন নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক ধীমান সাহা জুয়েল, সাবেক সভাপতি ভবানী শংকর রায় প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে শরীফ উদ্দিন সবুজ’র ‘প্যারালাল ইউনিভার্স’, আলী এহসানের ‘কথাকয় মধ্যরাত’, আহম্মেদ বাবলু’র ‘পালাতে পালাতে চোর পালাতে পালাতে সন্ন্যাসী’, ইশতিয়াক আহম্মেদের ‘সিনেমা হলের গলি’কাজল কাননের ‘কীটদষ্ট জল’, জিয়াবুল ইবনের ‘কোন বাইপাস নেই’, রাকিবুল রকি’র ‘আবীর ও হায়েনার গল্প’ প্রকাশিত বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। #