না’গঞ্জে আটকে মুক্তিপণ আদায় ফেসবুকের বন্ধু থেকে সাবধান

572

নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: নারায়ণগঞ্জের জামতলা এলাকার কাজী ফয়সাল জিকুর সঙ্গে ফেসবুকে ৩ মাস আগে পরিচয় হয় ঢাকার মোহাম্মদপুর শিয়া মসজিদ এলাকার ইমরান হোসেনের। এই বন্ধুত্বের কারণে ইমরানকে নারায়ণগঞ্জে আসার আমন্ত্রন জানায় জিকু। ফেসবুক বন্ধুর আমন্ত্রণে গত বৃহস্পতিবার ইমরান নারায়ণগঞ্জে আসলে জিকু তার দুই বন্ধু ইব্রাহীম ও মিম আলম দিগন্ত রাস্তা থেকে ইমরানকে স্বাগত জানিয়ে জিকুর জামতলার বাসায় নিয়ে যায়। বাসায় নেবার পর জিকু ও তার বন্ধুদের প্রকৃত রূপ প্রকাশ পায়। তারা ৩ জনে ইমরানকে ছোরার ভয় দেখিয়ে বিবস্ত্র করে মোবাইলে ছবি উঠিয়ে হাত মুখ বেঁধে বেধড়ক মারপিট করে। পরে ইমরানের পরিবারের কাছে মুক্তিপণ হিসেবে ৩০ হাজার টাকা দাবি করে। ইমরানের পরিবার ছেলের কথা ভেবে ২ দফায় ২২ হাজার ৩৯৫ টাকা বিকাশের মাধ্যমে পাঠায়।
এদিকে রাতভর নির্যাতন সহ্য করে শুক্রবার সকালে ছাড়া পেয়ে ইমরান শুক্রবার বিকেলে র‌্যাব-১১’র নারায়ণগঞ্জ ক্যাম্পে এসে অভিযোগ করেন।
ইমরানের অভিযোগের প্রেক্ষিতে র‌্যাব-১১ সদস্যরা শনিবার সকালে জিকু, ইব্রাহিম এবং মিম আলম দিগন্তকে আটক করে। পরে ওই তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাদের ফতুল্লা মডেল থানায় সোপর্দ করা হয়।
ঘটনার শিকার ইমরান হোসেন গাইবান্ধা জেলার পলাশ বাড়ী থানার কেতাব পাড়া গ্রামের রজব আলীর ছেলে। বর্তমানে সে ঢাকার মোহাম্মদপুর শিয়া মসজিদ এলাকায় বসবাস করে।
গ্রেফতারকৃত কাজী ফয়সাল জিকু শহরের জামতলার ১৫২ হাজী ভিলার ভাড়াটিয়া মৃত কাজী এজাজের ছেলে, ইব্রাহিম ফতুল্লার ডিগ্রিরচর এলাকার মৃত আবুল হোসেনের ছেলে এবং মিম আলম দিগন্ত ফতুল্লার ইসদাইর এলাকার খসরুর ছেলে।
ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসাদুজ্জামান বলেন, আটক ৩ জনের কাছ থেকে মুক্তিপণের আংশিক টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। এব্যাপারে ইমরান বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেছে। ###