আদালতের স্থগিতাদেশ অমান্য করে জমি দখল করেছে রাজউক -মেয়র আইভীর

453

নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: আদালতের স্থতিগাদেশ অমান্য করে রাজউক নগরীর চাষাঢ়া বালুরমাঠ এলাকায় উচ্ছেদ করে জমি দখলে নিয়েছে বলে অভিযোগ করেছে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন। জমিটি নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (সাবেক নারায়ণগঞ্জ পৌরসভা) থেকে লীজপ্রাপ্ত হয়ে প্রায় এক যুগেরও বেশি সময় থেকে ট্যাক্সি স্ট্যান্ডের দখলে ছিল। এই নিয়ে সিটি করপোরেশনের সাথে রাজউকের মামলাও চলছে। মামলা নিষ্পত্তি ছাড়াই রাজউকের এই উচ্ছেদ অভিযানের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করেছে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন।
নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেন, প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতার অসৎ উদ্দেশ্য হাসিলের জন্য আদালতের স্থগিতাদেশ অমান্য করে রাজউক এই অভিযান চালিয়েছে। ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে তিনি বলেন, রাজউক সম্পূর্ণ স্বেচ্ছাচারী হয়ে এই কাজ করেছে।
তিনি বলেন, ১৯৬৫ সালে রাজউক উন্নয়নের শর্তে নারায়ণগঞ্জের সাবেক পৌরসভার ও ব্যক্তি মালাকানার জমি অধিগ্রহন করে। কিন্তু উন্নয়ন না করে জায়গাটি পতিত অবস্থায় ফেলে রাখে। ১৯৯১ সালে সামরিক সরকারের প্রধান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ ঢাকা,চট্টগ্রাম ও নারায়ণগঞ্জ পৌরসভার অধিগ্রহনকৃত জমি ফেরত দেয়ার জন্য রাজউককে নির্দেশ দেন। কিন্তু ঢাকা ও চট্টগ্রামের জায়গা ফেরত দেয়া হলেও নারায়ণগঞ্জ পৌরসভার জায়গাটি ফেরত দেয়া হয়নি। নারায়ণগঞ্জ পৌরসভা জমি ফেরত চেয়ে রাজউকের কাছে আবেদন করে। কিন্তু রাজউক তাতে কর্ণপাত না করে জমিটি বিক্রির চেষ্টা করে। যার কারনে ২০০৬ সালে নারায়ণগঞ্জ পৌরসভা জমি ফেরত চেয়ে উচ্চ আদালতে মামলা করে। আদালত তখন পরবর্তী আদেশ না দেয়া পর্যন্ত স্থিতি অবস্থা বজায় রাখার নির্দেশ দেন। আদালতের এ  স্থতিগাদেশ অমান্য করে রাজউক আজ সিটি কর্পোরেশনের জমি দখলে নিয়েছে।
সিটি কর্পোরেশনের অভিযোগের প্রেক্ষিতে রাজউকের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ইফতেখার আহম্মেদ চৌধুরীকে
আদালতের স্থতিগাদেশ অমান্য করে উচ্ছেদের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন এ বিষয়ে আমার কিছু জানা নেই।
আজ সকালে নগরীর চাষাঢ়া বালুরমাঠ এলাকায় স্থাপনাসহ ট্যাক্সিষ্ট্যান্ড উচ্ছেদ করে দখলে এনেছে রাজউক। ৫০টি আধাপাকা স্থাপনা উচ্ছেদ করে ৫টি প্লটের প্রায় ৪৮ কাঠা জমি উদ্ধার করে রাজউক কাঁটা তারের বেড়া দিয়ে নিজেদের দখলে নেয়। ###