হাইর্কোটের নির্দেশ অমান্য করায়রূপগঞ্জে চেয়ারম্যানসহ ১৯জনকে শোকজ

313

রূপগঞ্জ প্রতিনিধি: হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে সাইনবোর্ড ভেঙে জমি দখলে নিতে বালু ভরাট ও বাউন্ডারী দেওয়াল নির্মাণের অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যানসহ ১৯জনকে শোকজ করেছে আদালত। উচ্চ আদালতের বিচারপতি মামনুন রাহমান ও বিচারপতি বিশ্বদেব চক্রবর্তী নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার মুড়াপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা তোফায়েল আহমেদ আলমাছসহ ১৯জনকে শোকজ করেন। গতকাল বুধবার শোকজকৃতদের দুই সপ্তাহের মধ্যে জবাব দেয়ার নির্দেশ প্রদান করেন। শোকজকৃতরা হলো আওয়ামী লীগ নেতা ও মুড়াপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান তোফায়েল আহমেদ আলম, আওয়ামী লীগ নেত্রী ও ইউপি সদস্য রেহেনা আক্তার, রূপগঞ্জের দড়িকান্দি এলাকার ইমদাদুল হকের ছেলে হাবিবুর রহমান, ফাইজুর রহমান, সাইদুর রহমান, মহিবুর রহমান, মৃত কাজীমউদ্দিনের ছেলে ইলিয়াছ, আবু তাহেরের স্ত্রী সালমা তাহের, ছেলে আব্দুল্লাহ ইউসুফ, আব্দুল্লাহ আল মামুন, মেয়ে রেজোয়ানা তাহের, মজিবুর রহমানের ছেলে মোহাম্মদ হাসান, মুস্তাক আহমেদ নুরুল হুদা, ইশতিয়াক আহমেদ খোকন, তোজাম্মেল হোসেনের মেয়ে মোসাম্মৎ ইয়াছমিন, নাজুমদ্দিনের ছেলে বাশিরউদ্দিন, গন্ধর্বপুর এলাকার জুলহাসের ছেলে জসিম, নারায়ণগঞ্জের মাসদাইর এলাকার আব্দুস সালামের ছেলে মোঃ সোহাগ, মুন্সিগঞ্জের হাতিমারা এলাকার আব্দুল হাকিমের ছেলে মোহাম্মদ হোসেন।
অভিযোগ থেকে জানা যায়, হাইর্কোটের নির্দেশ অমান্য করে আসামিরা উপজেলার দড়িকান্দি এলাকায় জমি দখলে নিতে বালু ভরাট ও বাউন্ডারী দেওয়াল নির্মাণ করে আসছিল। এ ঘটনায় মামলার বাদি দড়িকান্দি এলাকার ব্যবসায়ী মোশারফ হোসেন আদালতের স্মরণাপন্ন হলে আদালত তাদের শোকজ করেন। এর আগে জমি দখলের সংবাদ প্রকাশিত হওয়ায় ইউপি চেয়ারম্যান তোফায়েল আহমেদ আলমাছ স্থানীয় দুই সাংবাদিকসহ ব্যবসায়ী মোশারফ হোসেনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করেন। এ জমি দখলকে কেন্দ্র করে মো. সোহাগ বাদি হয়ে মোশারফ হোসেনের তিন ভাইসহ ১২জনের বিরুদ্ধে আরো একটি চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করেন। ###