ভুয়া রিভিউ প্রদানকারীদের বিরুদ্ধে অ্যামাজনের মামলা

267

পণ্যের ভুয়া রিভিউয়ের বিরুদ্ধে বেশ শক্ত অবস্থান নিয়েছে অনলাইন মার্কেটপ্লেস অ্যামাজন। গত শুক্রবার প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে সহস্রাধিক ভুয়া রিভিউকারীর বিরুদ্ধে ওয়াশিংটন ডিসির আদালতে একটি মামলা করা হয়েছে। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট দ্য ভার্জ জানাচ্ছে এই খবর। ফাইভআর নামে এক ফ্রিল্যান্সিং জব সাইটের মাধ্যমে এই ভুয়া রিভিউ লেখকরা কাজ পেতেন। তাঁরা প্রতিটি ভুয়া রিভিউ লিখে কামাই করতে পারতেন পাঁচ ডলার। যেহেতু সরাসরি ভুয়া রিভিউয়ের সঙ্গে যুক্ত নয় ফাইভআর, তাই এ মামলায় আসামি হিসেবে রাখা হয়নি ফ্রিল্যান্সিং প্রতিষ্ঠানটিকে। মোট এক হাজার ১১৪ জন অজ্ঞাত রিভিউকারীকে রাখা হয়েছে আসামির তালিকায়। প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, ‘দুর্ভাগ্যবশত খুবই অল্পসংখ্যক বিক্রেতা ও নির্মাতা কিছু অসাধু উপায় অবলম্বনের মাধ্যমে প্রতিযোগিতার এই বাজারে সুবিধা নিতে চায়। তার ভেতরে একটি ক্রেতাবেশে মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর রিভিউ প্রদান। যদিও সংখ্যায় কম, তার পরও এসব রিভিউ আমাদের ক্রেতাসাধারণের আস্থায় বিরূপ প্রতিক্রিয়া ফেলতে পারে। আর সেটি অ্যামাজনের ব্র্যান্ড ইমেজকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে।’ মাত্র পাঁচ ডলারের বিনিময়ে এমন রিভিউ দেওয়ার অপরাধকে মোটেই ছোট করে দেখত না অ্যামাজন। তাদের মতে, তাদের ভাবমূর্তি বেশ ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে এমন ঘটনা চলতে থাকলে। ক্রেতাদের সাবধান করে দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নকল রিভিউয়ের খোঁজ পাওয়ামাত্রই তাদের অবগত করার পরামর্শ দিচ্ছে। অ্যামাজন এ বছরের এপ্রিলে প্রথম এই বিষয়ে সোচ্চার হয়। সে সময় কিছু বানোয়াট রিভিউ প্রদানকারী ওয়েবসাইটের বিরুদ্ধে মামলা করে তারা। এ কারণে বেশ কিছু ওয়েবসাইট বন্ধও হয়ে গিয়েছিল।