যথা যোগ্য মর্যাদায় বন্দরে বিজয় দিবস উদযাপন

947

বন্দর প্রতিনিধি: যথা যোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস উদযাপন করেছে বন্দর উপজেলা প্রশাসন। বিজয় দিবসের সূর্যোদয়ের সাথে সাথে ৩১ বছর তোপধ্বনির মাধ্যমে এর সূচনা শুরু হয়। সকাল সাড়ে ৭টায় বন্দর সমরক্ষেত্র বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পন করা হয়। সকাল ৮টায় জাতীয় পতাকা উত্তেলন ও জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। সকাল সাড়ে ৮টায় বীরমুক্তিযোদ্ধা, পুলিশ, আনসার ও ভিডিপি, ফায়ার সার্ভিস, স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, স্কাউটস, কাব সদস্য, গার্লসগাইড সমন্বয়ে কুচকাওয়াজ ও মনঙ্গ ডিসপ্লে অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ১১টায় বীরমুক্তিযোদ্ধা, শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবার ও যুদ্ধাহত বীরমুক্তিযোদ্ধাদের সংবধর্ণা প্রদান করা হয়। সংবধর্ণা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ ৫ আসনের এমপি আলহাজ্ব সেলিম ওসমান। বন্দর উপজেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা পিন্টু বেপারী সভাপতিত্বে সংবধর্ণা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বন্দর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আতাউর রহমান মুকুল, বন্দর থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এম. এ রশিদ, বন্দর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা এম, এ লতিফ, জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি এবং জেলা পরিষদের সদস্য আবু জাহের ও বন্দর থানার অফিসার ইনর্চাজ আবুল কালাম প্রমুখ। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ছাত্রলীগ নেতা আরাফাত কবীর ফাহিম প্রমুখ। সংবর্ণা অনুষ্ঠানে এমপি সেলিম ওসমান বলেছেন, শীতলক্ষ্যা নদীতে একটি সেতু নির্মিত হচ্ছে। নবীগঞ্জ দিয়ে আরো একটি সেতু নির্মাণের প্রক্রিয়া চলছে, মদনগঞ্জে শান্তিরচরে নীটপল্লীর কাজ এগিয়ে যাচ্ছে। বন্দর থানা এলাকার বিরাট একটি অংশ জুড়ে রয়েছে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন। তাই উন্নয়ন কাজ গুলো সম্পন্ন করতে সিটি করপোরেশনের সহযোগীতা প্রয়োজন। সিটি করপোরেশনের সহযোগীতা পেলে খুব অল্প সময়েই উন্নয়ন কাজ গুলো সম্ভব হবে। সবগুলো উন্নয়ন কাজ সম্পন্ন করতে পারলে সারাদেশের উপজেলা গুলোর মধ্যে বন্দর হবে সব থেকে বেশি বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনকারী উপজেলা। ###