সরকারকে ভুল বুঝিয়ে খেলার মাঠকে কন্টেইনার টার্মিনালের প্রকল্প বানানোর পরিকল্পনা

227

নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকমঃ নারায়ণগঞ্জ শহরের খানপুরে অবস্থিত শত বছরের পুরনো ঐতিহাসিক বরফকল মাঠটি খেলাধুলার জন্যই উন্মুক্ত রাখার দাবীতে বৃহস্পতিবার সকালে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ হয়েছে। মানববন্ধনে ক্ষুদে খেলোয়াড়, সাবেক খেলোয়াড়, বিভিন্ন সামাজিক ক্লাব সহ স্থানীয়রা উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ শহরের নগর খানপুরে অবস্থিত শত বছরের পুরনো ঐতিহাসিক বরফকল মাঠটিতে ইনল্যান্ড কন্টেইনার টার্মিনাল (আইসিটি) নির্মাণের লক্ষ্যে ইতিমধ্যে সয়েল টেষ্ট শুরু করেছে বিআইডব্লিউটিএ। এ ঘটনার প্রতিবাদে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষণা দিয়েছেন প্রত্যেক ইউনিয়নে যাতে একটি মাঠ থাকে। কারণ শিক্ষার পাশাপাশি খেলাধুলার গুরুত্ব অপরিসীম। মাদক থেকে দূরে থাকার জন্য খেলাধুলা হচ্ছে অন্যতম মাধ্যম। অথচ বিআইডব্লিউটিএ এর একটি কুচক্রিমহল সরকারকে ভুল বুঝিয়ে খেলার মাঠটিতে ইনল্যাল্ড কন্টেইনার টার্মিনাল প্রকল্প বাস্তবায়নের পরিকল্পনা করছে। এতে ওই সংস্থাটি তথা ব্যবসায়ীরা লাভবান হলেও সামগ্রিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে নারায়ণগঞ্জবাসী। কারণ মাঠ হচ্ছে আমাদের অক্সিজেন। আর অক্সিজেন না থাকলে আমরা যেমনি বাঁচবোনা তেমনি প্রাচ্যের ডান্ডিখ্যাত নারায়ণগঞ্জও একসময় বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়বে। কারণ নগরী মাঠশূণ্য হয়ে পড়লে সাধারণ মানুষের প্রাণভরে নিঃশ্বাস নেয়ার জায়গা থাকবেনা। তার উপর বাড়বে মাদকের প্রকোপও। এছাড়া স্থানীয় মাঠ হচ্ছে খেলোয়ারদের প্রাইমারী স্কুলের মতো। যেখান থেকে তারা প্রশিক্ষণ নিয়ে পেশাদার লীগে খেলতে খেলতে একসময় দেশ তথা আর্ন্তজাতিক অঙ্গনে খ্যাতি লাভ করে থাকে। আজকে সেই মাঠ দখল হয়ে গেলে অদূর ভবিষ্যতে অত্র অঞ্চল থেকে আর কোন খেলোয়ার সৃষ্টি হবে কিনা সেটা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। বক্তারা আরো বলেন, এই মাঠেই ফুটবল প্র্যাকটিস করে বাংলার ম্যারোডোনা হিসেবে খ্যাতি পেয়েছিলেন খানপুরেরই ছেলে স¤্রাট হোসেন এমিলি। জাতীয় ফুটবল ও ক্রিকেট দলে স্থান পেয়েছিল জাকির, স্বপন, মো: পোকন, মো: আসলাম, মো: জসীমউদ্দিন, তপু, হানিফ, জামাল, সেলিম, মোহাম্মদ শরীফ, রনি তালুকদার, নজরুল ইসলাম, সোহেল রানা সহ অনেকে। আজ সেই মাঠকে নিয়ে চলছে নানা ষড়যন্ত্র।
মানববন্ধনে সাবেক ফুটবলার মো: ইসলেউদ্দিন বলেন, যারা মাঠ নিয়ে ষড়যন্ত্র করছেন তাদের বিরুদ্ধে বলতে চাই যেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষণা দিয়েছেন প্রতিটি ইউনিয়নে একটি করে মাঠ থাকতে হবে। আমরা তার কথা পরিপ্রেক্ষিতে এই মাঠের জন্য যদি রক্ত দিতে হয় তাও দিতে আমরা প্রস্তুত রয়েছি। আমাদের কাছ থেকে মাঠ কেড়ে নেওয়া হয় তাহলে এর প্রভাব পড়বে গোটা নারায়ণগঞ্জের উপর। মাঠ না পেলে ক্ষুদে খেলোয়াড়রা এক সময় মাদকে আসক্ত হয়ে নানা অপরাধমূলক কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়বে। আরো বক্তব্যে রাখেন মো: আলী ইমরান, খানপুর ক্রিকেট একাডেমীর কোচ রেহানউদ্দিন সুমন, অপু সহ আরো অনেকে।
খানপুর বরফকল মাঠ রক্ষার্থে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমান, নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের এমপি সেলিম ওসমান, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা: সেলিনা হায়াৎ আইভী ও নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো: রাব্বী মিয়ার সু-দৃষ্টি কামনা করেন সকলে।#