আড়াইহাজারে ইপি নির্বাচনে ৬চেয়ারম্যান,সদস্য পদে ৩৫৯ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে

263

হারাধন চন্দ্র দে- আড়াইহাজার প্রতিনিধি: পঞ্চম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের আজ আড়াইহাজারে ১০টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ১০টি ইউনিয়নের মধ্যে ৭টি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান, ও সংরক্ষিত সহ ১২০টি ওয়ার্ডের ২৪ জন সদস্য বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় বাকী ৩টি ইউনিয়নে ৬জন চেয়ারম্যান প্রার্থী ও সংরক্ষিত সহ ৯৬টি ওয়ার্ডে সদস্য পদে ৩৫৯ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে।
নির্বাচন সুষ্টু ও শান্তিপূর্নভাবে করার লক্ষে প্রশাসন বিপুল সংখ্যক আইন শৃংখলা বাহিনী মোতায়েন করেছে।
উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ মোরশেদ আলম জানান, আজ ১০টি ইউনিয়নের ১০০টি ভোটকেন্দ্রে ২ লক্ষ ২৪হাজার২৮৮জন ভোটার তাদের ভোট প্রয়োগের মাধ্যমে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদস্য নির্বাচন করবেন।
১০০ টি ভোট কেন্দ্রে ১০০ জন প্রিসাইডিং অফিসার ৫৩৩জন সহকারী প্রিসাইডিং ও ১০৬৬ জন পোলিং অফিসার সহ ১হাজার ৭১৯জন অফিসার দায়িত্ব পালন করবে। ভোট কেন্দ্র নিরাপত্তায় বিজিবি,পুলিশ,র‌্যাব ও আনসার সহ প্রায় ৩ হাজার আইন শৃংখলা বাহিনী মোতায়েন থাকবে। তার মধ্যে ষ্টাইকিং ফোর্স ১০টি,মোবাইল টিম ৩০টি,ভ্রাম্যমান আদালত ১১টি টহলে থাকবে। প্রতিটি কেন্দ্রে পুলিশের ১জন উপপরিদর্মক এর নেতৃত্বে ৩ জন অস্ত্রধারী পুলিশ,অস্ত্রধারী পিসি ১জন,এপিসি ১জন,অস্ত্রধারী আনসার ২জন সহ পুরুষ আনসার ৭জন ও মহিলা আনসার ৬জন সহ ২১ জন ভোট কেন্দ্রে সার্বক্ষনিক নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবে। এছাড়া অতি গুরুত্বপূর্ন ও গুরুত্বপূর্ণ ভোট কেন্দ্রে ১জন সহকারী উপপরিদর্শক সহ ২২ জন দায়িত্ব পালন করবে বলে আড়াইহাজার থানার ওসি শাখাওয়াত হোসেন জানান।

যে ১০টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে তা হল-সাতগ্রাম ইউনিয়ন ,হাইজাদী ইউনিয়ন,মাহমুদপুর ইউনিয়ন, উচিৎপুরা ইউনিয়ন,ব্রা‏হ্মন্দী ইউনিয়ন, ফতেপুর ইউনিয়ন, কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়ন, দুপ্তারা ইউনিয়ন, বিশনন্দী ইউনিয়ন, ও খাগকান্দা ইউনিয়ন।
তার মধ্যে বিশনন্দী ইউনিয়নে ৪জন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী ২প্রার্থীর মধ্যে আমিনুল ইসলাম রতন প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নেওয়ায় এখন আওয়ামীলীগের সিরাজুল ইসলাম ভুইয়া (নৌকা),বিএনপির খাজা মাঈনউদ্দিন (ধানের শীষ) ও আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী ও বর্তমান চেয়ারম্যান ইকবাল রহমান রিপন (আনারস) এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। খাগকান্দা ইউনিয়নে ৩জন চেয়ারম্যান প্রার্থী আওয়ামীলীগের বর্তমান চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম নুরু (নৌকা),বিএনপির বেলায়েত হোসেন (ধানের শীষ) ও আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম মোল্লা (আনারস) এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ব্রা‏হ্মন্দী ইউনিয়নে ২ চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে আওয়ামীলীগের বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ লাক মিয়া (নৌকা) ও বিএনপির সামসুল হক (ধানের শীষ) এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ও সদস্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বাকী ইউনিয়ন গুলোতে সংরক্ষিত ও সাধারন সদস্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
মনোনয়ন পত্র বাতিল ও প্রত্যাহার করে নেওয়ায় দুপ্তারা ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহিদা মোশারফ, হাইজাদী ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী আলী হোসেন ভুইয়া, মাহমুদপুর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী আমানউল্লাহ আমান, উচিৎপুরা ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ নাজিমউদ্দিন মোল্লা, ফতেপুর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু তালেব মোল্লা, কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী সাইফুল ইসলাম স্বপন ও সাতগ্রাম ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী অদুদ মাহমুদ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়।
নির্বাচনে কেন্দ্র দখল, ভোট কারচুপি ও সন্ত্রাসী হামলা হতে পারে আশংকা প্রকাশ করে প্রতিদ্বন্দ্বি বেশ কয়েকজন প্রার্থী জেলা প্রশাসক,পুলিশ সুপার,জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা,উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা,উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও দায়িত্বরত রিটানিং কর্মকর্তাদের কাছে শান্তিপূর্ন নির্বাচনের লক্ষে ভোট কেন্দ্র ও ভোটারদের নিরাপত্তা চেয়ে আবেদন করেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ কামাল হোসেন জানান, ভোট গ্রহন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্নভাবে করার লক্ষে প্রশাসন সকল ধরণের প্রস্তুতি গ্রহন করেছে।
এর আগে ১৩মে চেয়ারম্যান ও সদস্য প্রার্থীদের মধ্যে নির্বাচনী প্রতীক বরাদ্ধ দেওয়া হয়। প্রতিক পাওয়ার পর থেকে প্রার্থীরা তাদের কর্মী সমর্থকদের নিয়ে ব্যাপক প্রচারনা চালায়। ২৬ মে রাত ১২টা পর্যন্ত তাদের প্রচারনা অব্যাহত রাখে।
গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটানিং অফিসারের কার্যালয় থেকে ব্যালট পেপার সহ নির্বাচনী কাজে ব্যবহৃত সামগ্রী নিয়ে প্রিসাইডিং,সহকারী প্রিসাইডিং ও পোলিং অফিসারগন নিরাপত্তা বাহিনীর সহযোগিতায় স্ব-স্ব ভোট কেন্দ্রে অবস্থান নেন।

নির্বাচনে বিশনন্দি ইউনিয়নে সংরক্ষিত আসনে সদস্য পদে ৭জন ও সাধারন আসনে সদস্য পদে ৩০ প্রার্থী, ব্রা‏হ্মন্দী ইউনিয়নে সংরক্ষিত আসনে সদস্য পদে ৯জন প্রার্থী ও সাধারন ওয়ার্ডে সদস্য পদে ৪৮জন প্রার্থী,দুপ্তারা ইউনিয়নে সংরক্ষিত আসনে সদস্য পদে ৫জন ও সাধারন আসনে সদস্য পদে ২৫জন প্রার্থী,ফতেপুর ইউনিয়নে সংরক্ষিত আসনে সদস্য পদে ৬জন ও সাধারন আসনে সদস্য পদে ১৮জন প্রার্থী,হাইজাদী ইউনিয়নে সংরক্ষিত আসনে সদস্য পদে ৯জন ও সাধারন আসনে সদস্য পদে ২৫জন প্রার্থী,কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়নে সংরক্ষিত আসনে সদস্য পদে ৭জন ও সাধারন আসনে সদস্য পদে ২৭জন প্রার্থী, খাগকান্দা ইউনিয়নে সংরক্ষিত আসনে সদস্য পদে ১৩ জন ও সাধারন আসনে সদস্য পদে ২৫জন প্রার্থী,মাহমুদপুর ইউনিয়নে সংরক্ষিত আসনে সদস্য পদে ৭জন ও সাধারন আসনে সদস্য পদে ২২জন প্রার্থী,সাতগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদে সংরক্ষিত আসনে সদস্য পদে ৮জন ও সাধারন আসনে সদস্য পদে ৩১জন প্রার্থী,উচিৎপুরা ইউনিয়ন পরিষদে সংরক্ষিত আসনে সদস্য পদে ৯জন ও সাধারন আসনে সদস্য পদে ২৮জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। ###