সাত হত্যা মামলার ৬ জন সাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহণ মামলার পরবর্তি তারিখ ৬ জুন

272

নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: নারায়ণগঞ্জের আলোচিত সাত হত্যা মামলার ৬ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ ও জেরা শেষ হয়েছে। আজ সোমবার সকাল দশটা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত জেলা ও দায়রা জজ সৈয়দ এনায়েত হোসেনের আদালতে ৬ জনের সাক্ষ্য গ্রহন করা হয়।

মামলার প্রধান আসামী নূর হোসেন ও র‌্যাবের সাবেক তিন কর্মকর্তা, লে.কর্নেল তারেক সাঈদ মোহাম্মদ, কমান্ডার এম এম রানা ও মেজর আরিফ হোসেনসহ সহ ২৩ আসামীর উপস্থিতিতে সাক্ষ্য গ্রহণ ও জেরা করা হয়। সাক্ষ্য গ্রহন শেষে আদালত আগামী ৬ জুন পরবর্তী সাক্ষীদের সাক্ষ্য গ্রহণ ও জেরার তারিখ নির্ধারণ করেন।
রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এস এম ওয়াজেদ আলী খোকন জানান,সাক্ষ্য গ্রহণ কার্যক্রমের শুরুতেই আজ সাত হত্যা মামলার ১৬৪ ধারায় আসামীসহ সংশ্লিষ্টদের জবানবন্দী রেকর্ডকারী তৎকালীন চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট জাবিদ হোসেন এর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে জেরা করা হয়। এরপর পর্যায়ক্রমে সাক্ষী হিসেবে মোয়াজ্জেম হোসেন শাহীন, শহীদুল ইসলাম খোকা, রাবেয়া আক্তার আঁখি, হাজী আবদুল মতিন হাওলাদার ও শাহজাহান সাজুর সাক্ষ্য গ্রহণের পর আসামীপক্ষের আইনজীবিরা তাদের জেরা করন। এই নিয়ে ৭ খুনের দুটি মামলায় মোট ১২৭ জন সাক্ষীর মধ্যে পৃথক দুই মামলার বাদি, একজন যুগ্ন জেলা জজ, পাঁচজন জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ও বেশ কয়েকজন আইনজীবিসহ মোট ৬১ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ সম্পন্ন হলো।
২০১৪ সালের ২৭ এপ্রিল ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের ফতুল্লার লামাপাড়া এলাকা থেকে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলাম সিনিয়র আইনজীবি চন্দন সরকারসহ ৭ জনকে অপহরণ করা হয়। এর তিন দিন পর শীতলক্ষ্যা নদী থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়। ##